আজ ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

“পরাজিত হয়ে আব্দুল কাদের মিথ্যাচার,প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন”

নুরুল আলম: খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী আব্দুল কাদের মিথ্যাচার করে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনের পাল্টা জবাব দিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে রামগড় উপজেলা চেয়ারম্যান ও রামগড় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারী। মঙ্গলবার (১৪ মে ২০২৪) দুপুরে খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

নির্বাচনে পরাজিত হয়ে গত ৮মে’২০২৪ রামগড় আব্দুল কাদের (দোয়াত কলম) চেয়ারম্যান প্রতীকের প্রার্থী মিথ্যা,বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে সংগঠনকে নিয়ে ষড়যন্ত্রের মেতে উঠেছে বলে অভিযোগ এনে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন অভিযোগ করেন বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারী।

এতে রামগড় উপজেলা চেয়ারম্যান ও রামগড় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারী লিখিত বক্তব্য পাঠকালে বলেন, আব্দুল কাদের নির্বাচনে জনসমর্থ না থাকায় পরাজিত হওয়ায় এখন উল্টাপাল্টা প্রলাপ বকে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।

আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, রামগড় পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের নেতা রফিকুল আলম কামাল,রামগড় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তফা হোসেন,সহ-সভাপতি মমিনুল ইসলাম, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য মো.বেলায়েত হোসেনসহ অসংখ্য নেতাকর্মী এতে অংশ নেন।

এতে অভিযোগ করা হয়, চেয়ারম্যান পদে পরাজিত হয়ে কাদের স্বার্থনীশি মহলের ইন্ধনে মরিয়া ষড়যন্ত্রের নীল নকশা ছক অনুসারে গত ৮মে ২০২৪ তারিখের সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ এবং উৎসবমূখর পরিবেশে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে কাজ করছে। ৬ষ্ঠ ধাপের প্রথম ধাপের এ নির্বাচনে রামগড় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিপুল ভোটে ২য় বারের মতো রামগড় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন বিশ্ব (প্রদীপ কুমার কারবারী)। এতে চেয়ারম্যান পদে মোট ০৩জন ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট ৭জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে।

নির্বাচন চলাকালীন সময়ে রাষ্ট্রের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা,পর্যবেক্ষক টীম, জেলা ও উপজেলার জাতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীরা সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষন করে নির্বাচনে কারচুপির কোনো অভিযোগ না আনলেও নির্বাচনের চারদিন পর গত রোববার (১২ মে’২০২৪) সকালে ঢাকাস্থ বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টাস এসোসিয়েশন মিলনায়তনে পরাজিত প্রার্থী আব্দুল কাদের সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচনে অনিয়ম,কেন্দ্র দখল,ভোট জালিয়াতি এবং নির্বাচন পরবর্তীতে তার সমর্থকদের ওপর হামলা, বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে লুটপাটসহ নির্বাচনে প্রভাব বিস্তারের মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ করে বিপুল সংখ্যক আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্য কঠোরতার সাথে দায়িত্ব পালনকে প্রশ্নের সম্মুখীন করছে বলে জানান।

বিষয়টি তদন্ত করে সত্য উন্মোচিতসহ জড়িত ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়ে বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারী বলেন, আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে অদৃশ্য বিশেষ মহলের প্ররোচনায় পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সুযোগ্য চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরীর দীর্ঘদিনের অর্জিত সুনাম বিনষ্ঠের বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য সংবাদ সম্মেলনে উপস্থাপন করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি। তার বানোয়াট অভিযোগ আওয়ামীলীগের রাজনীতিকে কলুষিত করেছেন। নির্বাচন সিস্টেমকে কলুষিত করায় এ চক্রের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নিকট জোর দাবি জানান তিনি।

নির্বাচনে পরাজিত আবদুল কাদের এর উদ্দেশ্যমূলকভাবে মিথ্যাচারের প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি আরো জানান, বিগত ২০১৯ সালে রামগড় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আমি নৌকা প্রতিকে আবু বক্কর সিদ্দিকের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে নির্বাচিত হয়ার পর থেকে সততা নিষ্ঠা ও সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি। দীর্ঘ এ সময়ে আমি এলাকার উন্নয়ন,আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বিরামহীন ভাবে কাজ করেছি। যার ফলশ্রুতিতে এবারও স্বতন্ত্র প্রতীক আনারস প্রতিকে এ উপজেলায় দলমত নির্বিশেষে পাহাড়ি-বাঙালি, সাধারন মানুষসহ নেতাকর্মীরা আমাকে বিপুল ভোটে পুনরায় বিজয়ী করেছে।

এ ধরনের মিথ্যা অভিযোগ এনে কাদের রামগড়ে আওয়ামীলীগের নেতৃত্ব শূণ্য করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে বলে পাল্টা অভিযোগ করা হয় সংবাদ সম্মেলন থেকে। সে সাথে তা ফেইসবুকে পোষ্ট করে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ সহ নির্বাচনকালীন সময়ে সরকারের প্রশংসিত ভূমিকাকে কলুষিত করেছেন। যা নিন্দনীয়।

এবারের উপজেলা নির্বাচন বর্তমান সরকারের জন্য একটি চ্যালেঞ্জিং নির্বাচন। এ নির্বাচনে ভোটারদের নির্বাচনী প্রচারনাকালে আমার বিরুদ্ধে আব্দুল কাদের বিভিন্ন ফেইক আইডির মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক উস্কানিসহ এবং মিথ্যা তথ্য দিয়ে ষড়যন্ত্র করেছে বলে অভিযোগ তোলেন। চক্রটি গণমাধ্যমে এবং টিআইবিতে মিথ্যা তথ্য সরবরাহ করে অপচেষ্টা চালিয়েছিলেন।

সে আমার বিরুদ্ধে রামগড়ে সন্ত্রাসী বাহিনী পালনের ভীতিহীন অভিযোগ তুলে এলাকায় ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। সন্ত্রাস, সন্ত্রাসী কোনটাই আমি লালন-পালন ও সমর্থন করি না। এসব মনগড়া মিথ্যা তথ্য জনগণকে বিভ্রান্ত করাসহ বড় ধরনের ইঙ্গিত বলেও তিনি অভিযোগ আনেন। চরম মিথ্যাচার, ভুয়া-ভিত্তিহীন অভিযোগ এনে অবাধ, শান্তিপূর্ণ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ ও বিতর্কিত করার হীনমানসিকতার পরিচয় বহন করে।

সংবাদ সম্মলনে তার দেয়া বক্তব্যগুলো হুবহু বিএনপি-জামাতের দেওয়া বক্তব্যের প্রতিধ্বনি। অনুসন্ধান করলে আব্দুল কাদেরের সাথে বিএনপি ও রামগড়ের চিহ্নিত জামাত-শিবিরের লোকজনের সাথে দীর্ঘদিনের মধুর সম্পর্কের কথাও তিনি অভিযোগ করেন। ঢাকাস্থ সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত সালাউদ্দিন টুকু, নারী নির্যাতন মামলার একজন জঘন্যতম আসামী। প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষন করার অভিযুক্ত হয়ে কারাভোগ করে জামিনে মুক্ত আছেন বলেও এতে জানান তিনি।

 

Share

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

You cannot copy content of this page