আজ ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ইউপিডিএফের সড়ক অবরোধ পালন

কঠোর অবস্থানে ছিলো পিকেটাররা:দুর্বৃত্তের গুলি সাজেকগামী পর্যটক গাড়িতে

নিজস্ব প্রতিনিধি:: সাজেক গামী পর্যটক গাড়ি লক্ষ করে গুলি করেছে দূর্বৃত্তরা। সোমবার সকাল ১১টায় সাজেক যাওয়ার পথে দীঘিনালা-সাজেক সড়কের শুকনাছড়ি এলাকায় পর্যটকবাহী গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়েছে। তবে এতে হতাহতের ঘটনা ঘটেনি

এসময় পর্যটকবাহী তিন চাকার মাহিন্দ্র গাড়ির সামনে গ্লাসে ও প্রাইভেটকার চাকায় গুলি লাগে এবং পিকআপ ভাঙচুর করা হয়। খাগড়াছড়ির ইউপিডিএফের ৪ নেতাকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে সংগঠনটির ডাকে খাগড়াছড়িতে সোমবার সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধ পালিত করে। । এছাড়াও অবরোধ চলাকালে বিভিন্ন উপজেলায় সড়কে টায়ারে আগুন দেয় পিকেটাররা। সড়কে গাছের গুড়ি,গাছ ফেলে অবরোধ করা হয় সড়ক।

দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নুরুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ‘ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে সেনাবাহিনী ও পুলিশ গিয়ে পর্যটকসহ গাড়িগুলো উদ্ধার করে। তাদেরকে সেনাবাহিনীর বাঘাইহাট জোনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

তিনটি গাড়ি কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, সেগুলো মেরামতের পর আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাহাড়ায় তাদের গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়া হবে।’এর আগে সকালে দীঘিনালার বাবুছড়া নতুন বাজার এলাকায় সড়কে গাছ ফেলে এবং আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে পিকেটাররা।

ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এর চার নেতাকর্মী হত্যার প্রতিবাদ ও সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারসহ বিচারের দাবীতে চলছে খাগড়াছড়ি জেলাব্যাপী সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধ। পিকেটিং,টায়ারে আগুণ,সড়কে গাছ,গাছের গুড়ি ফেলে সফল করতে মাঠে নেমেছে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধে দুর-পাল্লার ও আন্তঃজেলাসহ অভ্যন্তরীণ উপজেলাগুলোর সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। কঠোর ভাবে সড়ক অবরােধে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধের পাশাপাশি নীবর নিস্তব্দ সড়কে পরিণত হয়েছে পাহাড়ি এলাকার সড়ক গুলো।

খাগড়াছড়ি জেলা শহরেরও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার চলাচলও ছিল কম। ইউপিডিএফ সমর্থকরা সর্বাত্মক ভাবে অবরােধ পালনে জেলার বিভিন্ন উপজেলার সড়কগুলোতে অবস্থান নিয়েছে। এদিকে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর ধরনের ব্যবস্থান গ্রহণ করা হয়েছে।

ইউপিডিএফের জেলা সংগঠন অংগ্য মারমা বলেন,বাঘাইহাট অবরোধের আওতামুক্ত এলাকা। সেখানে এ ধরনের কোন ঘটনার প্রশ্নই আসে না। এছাড়া দীঘিনালায় ইউপিডিএফের সাংগঠনিক কার্যক্রম নেই জানিয়ে এটি অবরােধ নিয়ে ষড়যন্ত্রের অংশ বলে তিনি জানান। এ সময় তিনি কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই অবরোধ পালন হয়েছে জানান।

উল্লেখ্য,গত ১১ ডিসেম্বর রাতে সন্ত্রাসীরা পানছড়ির লোগাঙ এলাকার অনিল পাড়ায় একটি বাড়িতে সশস্ত্র হামলা করে পিসিপির সাবেক সভাপতি ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিপুল চাকমা,পিসিপি’র কেন্দ্রীয় সহসভাপতি সুনীল ত্রিপুরা,ইউপিডিএফ সংগঠক রুহিন বিকাশ ত্রিপুরা (রহিনসা) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা সহসভাপতি লিটন চাকমাকে গুলি করে নৃশংসভাবে হত্যা করে।

Share

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

You cannot copy content of this page