আজ ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কাউখালীতে নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রতিবাদ দিবস পালিত

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ কাউখালীতে নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রতিবাদ দিবস ২০২৩ পালিত হয়েছে। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে নারীর উপর সহিংসতা আশংক; প্রতিরোধ গড়ে তুলুন, প্রতিবাদ করুণ, এ প্রতিপাদ্যে ও অধিকার এখানে, এখনই প্রকল্প-২ এর মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলা অডিটোরিয়ামে এ উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দা সাদিয়া নূরীয়া।

তারুণ্যের কন্ঠস্বর প্লাটফর্ম ও উইমেন্স এডুকেশন ফর এডভান্সমেন্ট এন্ড এমপাওয়ারমেন্ট এর আয়োজনে এবং নারী পক্ষের সহযোগীতায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উইভ এর নির্বাহী অফিসার নাইউ প্রু মারমার (মেরি) সভাপতিত্বে ও প্রকল্পের ট্রেইনার নিঝুম চাকমার সঞ্চালনায় এতে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অংপ্রু মারমা, ঘাগড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দীন, বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং কিশোর-কিশোরী ও অভিভাবকবৃন্দ।

বক্তারা, নারীর নিরাপদ জীবন বির্নিমাণে ব্যক্তি, সমাজ ও রাষ্ট্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট সকলকে দায়িত্ব পালনের প্রতি জোর দাবি জানান।

উল্লেখ, নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে ১৯৮১ সালে লাতিন আমেরিকায় নারীদের এক সম্মেলনে ২৫ নভেম্বর আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস পালনের ঘোষণা দেওয়া হয়।

১৯৬০ সালের ২৫ নভেম্বর লাতিন আমেরিকার দেশ ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্রের স্বৈরাচারী শাসকের বিরুদ্ধে ন্যায়সংগত আন্দোলন করার জন্য প্যাট্রিয়া, মারিয়া তেরেসা ও মিনার্ভা মিরাবেল এই তিন বোনকে হত্যা করা হয়। তারই স্মরণে দিবসটির উদ্ভব।

১৯৯৩ সালে ভিয়েনায় বিশ্ব মানবাধিকার সম্মেলন দিবসটিকে স্বীকৃতি দেয়। জাতিসংঘ দিবসটি পালনের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয় ১৯৯৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর। বাংলাদেশে নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রতিবাদ দিবস উদযাপন কমিটি ১৯৯৭ সাল থেকে এই দিবস ও পক্ষ পালন করছে।

কাউখালীতে যুব ও কিশোরী মেয়েদের ক্ষমতায়ন প্রকল্পের সমাপনী সভা অনুষ্ঠিত

পার্বত্য চট্টগ্রামে দীর্ঘদিন যাবৎ যুব ও কিশোরী মেয়েদের ক্ষমতায়ন নিয়ে কাজ করা আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ (ওএলএইচএফ) প্রকল্পের কার্যক্রম সমাপনী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা উইভ সহিংসতামুক্ত ও মর্যাদাপূর্ণ জীবনের জন্য পার্বত্য চট্টগ্রামের যুব ও কিশোরী মেয়েদের ক্ষমতায়ন নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করে আসছে।

মঙ্গলবার (০৫ ডিসেম্বর) সকালে কাউখালী উপজেলা অডিটোরিয়ামে এ উপলক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি কাউখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দা সাদিয়া নূরীয়া।

উইভ এর নির্বাহী অফিসার নাইউ প্রু মারমার (মেরি) সভাপতিত্বে ও প্রকল্পের ট্রেইনার নিঝুম চাকমার সঞ্চালনায় এতে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অংপ্রু মারমা, ঘাগড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দীন, প্রকল্প সমন্বয়কারী সুকান্ত চাকমা, উনুচিং মং মারমা, প্রোগ্রাম মনিটরিং অফিসার মংচোয়াং অভি, অফিসার উহিন সুই রোয়াজা, বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা, কিশোর-কিশোরী ও অভিভাবকবৃন্দ।

প্রকল্পে বিভিন্ন কার্যক্রম প্রেজেন্টেশন করে প্রকল্প সমন্বয়ক সুকান্ত চাকমা। উইমেন্স এডুকেশন ফর এডভান্সমেন্ট এন্ড এমপাওয়ারমেন্ট (উইভ) আয়োজনে ও বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) সিমাভি সহযোগিতায় এবং ইউরোপিয়ানের অর্থায়নে পার্বত্য অঞ্চলে যুব-কিশোরী স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত, নারী ক্ষমতায়নসহ বিভিন্ন বিষয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছে এ প্রকল্পটি।

এর সুবিধাভোগী যুব ও নারীরা নিজেদের আত্মমর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছে।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি সৈয়দা সাদিয়া নূরীয়া বলেন, কিশোরী মেয়েদের নিয়ে উইভ অনেক ভালো কাজ করেছে। যেখানে যেখানে কিশোরী ক্লাব স্থাপন করা হয়েছে সেগুলো সকলে সমন্বয় করে ক্লাবগুলোকে রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন। এতে করে ক্লাবে যে উদ্দেশ্য তা সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হবে। তিনি উইভের কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন।
উইভ’র নির্বাহী পরিচালক নাউপ্রু বলেন, আমরা নারীদের প্রজনন স্বাস্থ্য, সমাজের নারীদের প্রতি কুসংস্কার প্রতিরোধসহ বিভিন্ন বিষয়ের উপর দীর্ঘ ৫বছর কাজ করেছি।

উল্লেখ, উইভ পার্বত্য এলাকা কাউখালী ও নানিয়ারচর উপজেলায় নারী সুরক্ষা ও নারী ক্ষমতায়নের জন্য দীর্ঘ ৫ বছর প্রকল্পের কাজ করেছে।

Share

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

You cannot copy content of this page